বাংলাদেশের ইতিহাসে সর্বোচ্চ রেমিট্যান্স এল জুলাইয়ে

মহামারী করো’না ভাইরাসে সারা বিশ্ব বিপর্যস্ত। বাংলাদেশও আক্রান্ত। কিন্তু এই পরিস্থিতির মধ্যেই প্রবাসীদের পাঠানো রেমিট্যান্সে রেকর্ডের পর রেকর্ড হতে চলেছে। শুধু জুলাই মাসে একক মাস হিসেবে প্রবাসীরা দেশে ২৫৯ কোটি ৯৫ লাখ মার্কিন ডলারের সর্বোচ্চ রেকর্ড রেমিট্যান্স পাঠিয়েছেন। যা অতীতের সব রেকর্ড ভেঙে দিয়েছে।ফলে গত ৩০ জুলাই পর্যন্ত বাংলাদেশ ব্যাংকের বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ বেড়ে তিন হাজার ৭২৯ কোটি ডলার দাঁড়িয়েছে। যা বাংলাদেশি মুদ্রায় তিন লাখ ১৬ হাজার ২০৪ কোটি টাকা।সোমবার বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্বাহী পরিচালক কাজী ছাইদুর রহমান গণমাধ্যমকে এ তথ্য জানিয়েছেন।প্রতিবছরই প্রচুর পরিমাণ রেমিট্যান্স পাঠান বিশ্বের বিভিন্ন দেশে অবস্থানকারী প্রবাসী বাংলাদেশিরা। বিশেষ করে দুই ঈদ উপলক্ষে পরিবারের জন্য বিপুল পরিমাণ অর্থ পাঠান প্রবাসীরা।বাংলাদেশ ব্যাংকের তথ্যমতে, জুলাইয়ে ২৫৯ কোটি ৯৫ লাখ ডলার রেমিট্যান্স এসেছে। একক মাস হিসেবে এটি বাংলাদেশের ইতিহাসে এখন পর্যন্ত সর্বোচ্চ রেমিট্যান্স আহরণ হয়েছে। এর আগে সর্বোচ্চ রেমিট্যান্স এসেছিল চলতি বছরেরই জুনে। ওই মাসে ১৮৩ কোটি ৩০ লাখ ডলার রেমিট্যান্স এসেছিল।বাংলাদেশ ব্যাংকের তথ্য আরও বলছে, গেল অর্থবছরে (২০১৯-২০) মোট এক হাজার ৮২০ কোটি ৪৯ লাখ ডলার সমপরিমাণ অর্থ পাঠিয়েছেন প্রবাসীরা। যা বাংলাদেশি মুদ্রায় (প্রতি ডলার ৮৫ টাকা ধরে) এক লাখ ৫৪ হাজার ৭৪২ কোটি টাকা। দেশের ইতিহাসে এর আগে কোনো অর্থবছরে এত অর্থ আসেনি।

তথ্যসূত্র : যুগান্তর

Hãy bình luận đầu tiên

Để lại một phản hồi

Thư điện tử của bạn sẽ không được hiện thị công khai.


*